জনপদ গ্রামীণ জনপদ শিল্প-সাহিত্য-সংস্কৃতি ব্যাবসা-বানিজ্য-অর্থনীতি আমাদের প্রসঙ্গে

,

,

প্রচ্ছদ
Gaibandha.news image: 'রায়ে সন্তুষ্ট লিটনের স্বজনদের চাওয়া দণ্ড দ্রুত কার্যকর'-'

রায়ে সন্তুষ্ট লিটনের স্বজনদের চাওয়া দণ্ড দ্রুত কার্যকর

গাইবান্ধা ডট নিউজ | বৃহস্পতিবার ২৮ নভেম্বর ২০১৯

গাইবান্ধা ডট নিউজ:

বহুল আলোচিত গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলার রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে রায় দ্রুত কার্যকরের দাবি জানিয়েছেন স্বজনেরা। আজ বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) মামলার রায়ে জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য কর্নেল (অব.) কাদের খানসহ সাত আসামিকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। গাইবান্ধা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক দিলীপ কুমার ভৌমিক এই রায় ঘোষণা করেন।

রায়ের পরে আদালত প্রাঙ্গণে এক প্রতিক্রিয়ায় প্রয়াত এমপি লিটনের স্বজনেরা বলেন, এই রায়ে তারা খুশি। ন্যায় বিচার পেতে প্রায় তিন বছর অপেক্ষার পর সাতজনের মৃত্যুদণ্ডের রায় দ্রুত কার্যকর করার জন্য সরকারের প্রতি আবেদন জানিয়ে পলাতক আসামি চন্দন কুমারকে ফিরিয়ে আনার দাবি করেন তারা।

নিহত সংসদ সদস্য লিটনের স্ত্রী সৈয়দা খুরশিদ জাহান স্মৃতি বলেন, লিটন হত্যা মামলার পলাতক আসামি চন্দনকে ফিরিয়ে এনে রায় দ্রুত কার্যকর জন্য অনুরোধ করব।

লিটনের ছেলে সাকিব সাদমান রাতিন বলেন, 'আদালত সঠিক বিচার করেছেন। এখন দ্রুত রায় কার্যকর চাই, তাদের যেন দ্রুত ফাঁসি হয়।'

মামলার বাদী এবং নিহত এমপি লিটনের বোন ফাহমিদা বুলবুল জানান, মামলার বাদী হিসেবে তিনি আদালতের দেয়া রায়ে সন্তুষ্ট। এ রায়ে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলাবাসী সন্তুষ্ট বলেও জানান ফাহমিদা বুলবুল।

প্রিয় নেতাকে হারানোয় দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তির অপেক্ষায় ছিলেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও এলাকাবাসী। এখন দ্রুত সাজা কার্যকরের দাবি তাদের। খুনিদের দৃষ্টান্তমূলক সাজা কার্যকর হলে কেউ আর এমন হত্যায় জড়াতে সাহস পাবে না, বলছেন স্বজন ও স্থানীয়রা।

মৃত্যুদ-প্রাপ্ত আসামিরা হলেন, সাবেক এমপি কাদের খান, তার পিএস শামছুজ্জোহা, গাড়িচালক হান্নান, ভাতিজা মেহেদি, শাহীন মিয়া, আনোয়ারুল ইসলাম রানা ও চন্দন কুমার। এরমধ্যে, চন্দন কুমার ভারতে পালিয়ে গেছেন। আর কারাগারে মারা গেছেন সুবল চন্দ। পলাতক চন্দনকে গ্রেপ্তার করে ফাঁসির কার্যকরের আদেশ দিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার সকালে কঠোর নিরাপত্তায় লিটন হত্যা মামলার অন্যতম আসামি কাদের খানসহ অন্য আসামিদের আদালতে তোলা হয়।

২০১৬ সালের ৩১শে ডিসেম্বর সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গায় নিজ বাড়িতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন এমপি লিটন।

ঘটনার তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ৩০শে এপ্রিল আটজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ।গত ৩১শে অক্টোবর এ মামলার ৫৯ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়। পরে ১৮ ও ১৯শে নভেম্বর দুইদিন রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামি পক্ষের আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক শেষে ২৮শে নভেম্বর রায়ের দিন ধার্য করেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক।

অন্যদিকে, লিটন হত্যায় অস্ত্র আইনের মামলায় গত ১১ই এপ্রিল আবদুল কাদের খানকে যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছে আদালত।

-ছবি তুলেছেন কুদ্দুস আলম

 

কেআরআর/জিএআই



Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ছবি সংবাদ

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ফটো গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ফটো ফিচার

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ভিডিও গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ভিডিও প্রতিবেদন

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

সর্বশেষ খবর

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news image: 'হলি আর্টিজান হামলার রায় আজ, আদালত চত্বরে বিশেষ নিরাপত্তা'-'

হলি আর্টিজান হামলার রায় আজ, আদালত চত্বরে বিশেষ নিরাপত্তা

গাইবান্ধা ডট নিউজ | বুধবার ২৭ নভেম্বর ২০১৯

গাইবান্ধা ডট নিউজ:

বহুল আলোচিত গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলার রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে রায় দ্রুত কার্যকরের দাবি জানিয়েছেন স্বজনেরা। আজ বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) মামলার রায়ে জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য কর্নেল (অব.) কাদের খানসহ সাত আসামিকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। গাইবান্ধা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক দিলীপ কুমার ভৌমিক এই রায় ঘোষণা করেন।

রায়ের পরে আদালত প্রাঙ্গণে এক প্রতিক্রিয়ায় প্রয়াত এমপি লিটনের স্বজনেরা বলেন, এই রায়ে তারা খুশি। ন্যায় বিচার পেতে প্রায় তিন বছর অপেক্ষার পর সাতজনের মৃত্যুদণ্ডের রায় দ্রুত কার্যকর করার জন্য সরকারের প্রতি আবেদন জানিয়ে পলাতক আসামি চন্দন কুমারকে ফিরিয়ে আনার দাবি করেন তারা।

নিহত সংসদ সদস্য লিটনের স্ত্রী সৈয়দা খুরশিদ জাহান স্মৃতি বলেন, লিটন হত্যা মামলার পলাতক আসামি চন্দনকে ফিরিয়ে এনে রায় দ্রুত কার্যকর জন্য অনুরোধ করব।

লিটনের ছেলে সাকিব সাদমান রাতিন বলেন, 'আদালত সঠিক বিচার করেছেন। এখন দ্রুত রায় কার্যকর চাই, তাদের যেন দ্রুত ফাঁসি হয়।'

মামলার বাদী এবং নিহত এমপি লিটনের বোন ফাহমিদা বুলবুল জানান, মামলার বাদী হিসেবে তিনি আদালতের দেয়া রায়ে সন্তুষ্ট। এ রায়ে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলাবাসী সন্তুষ্ট বলেও জানান ফাহমিদা বুলবুল।

প্রিয় নেতাকে হারানোয় দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তির অপেক্ষায় ছিলেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও এলাকাবাসী। এখন দ্রুত সাজা কার্যকরের দাবি তাদের। খুনিদের দৃষ্টান্তমূলক সাজা কার্যকর হলে কেউ আর এমন হত্যায় জড়াতে সাহস পাবে না, বলছেন স্বজন ও স্থানীয়রা।

মৃত্যুদ-প্রাপ্ত আসামিরা হলেন, সাবেক এমপি কাদের খান, তার পিএস শামছুজ্জোহা, গাড়িচালক হান্নান, ভাতিজা মেহেদি, শাহীন মিয়া, আনোয়ারুল ইসলাম রানা ও চন্দন কুমার। এরমধ্যে, চন্দন কুমার ভারতে পালিয়ে গেছেন। আর কারাগারে মারা গেছেন সুবল চন্দ। পলাতক চন্দনকে গ্রেপ্তার করে ফাঁসির কার্যকরের আদেশ দিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার সকালে কঠোর নিরাপত্তায় লিটন হত্যা মামলার অন্যতম আসামি কাদের খানসহ অন্য আসামিদের আদালতে তোলা হয়।

২০১৬ সালের ৩১শে ডিসেম্বর সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গায় নিজ বাড়িতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন এমপি লিটন।

ঘটনার তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ৩০শে এপ্রিল আটজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ।গত ৩১শে অক্টোবর এ মামলার ৫৯ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়। পরে ১৮ ও ১৯শে নভেম্বর দুইদিন রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামি পক্ষের আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক শেষে ২৮শে নভেম্বর রায়ের দিন ধার্য করেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক।

অন্যদিকে, লিটন হত্যায় অস্ত্র আইনের মামলায় গত ১১ই এপ্রিল আবদুল কাদের খানকে যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছে আদালত।

-ছবি তুলেছেন কুদ্দুস আলম

 

কেআরআর/জিএআই



Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ছবি সংবাদ

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ফটো গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ফটো ফিচার

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ভিডিও গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ভিডিও রিপোর্ট

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

সর্বশেষ খবর

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

Gaibandha.news Ad. image

Gaibandha.news Ad. image

Gaibandha.news Ad. image


Gaibandha.news Ad. image

গল্প-প্রবন্ধ-নিবন্ধ

মতামত-বিশ্লেষণ

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি

কৃষি-বিজ্ঞান

স্বাস্থ্য-চিকিৎসা

সাজসজ্জা

রান্নাবান্না

ভ্রমণ-বিনোদন

চারু-কারুকলা

শিশুকিশোর

ইভেন্ট ফটো গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image

ইভেন্ট ভিডিও গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image

আর্কাইভ

SunMonTueWedThuFriSat
1

2

3

4

5

6

7

8

9

10

11

12

13

14

15

16

17

18

19

20

21

22

23

24

25

26

27

28

29

30

31

Gaibandha.news Ad. image

ইভেন্ট বোর্ড

খোঁজখবর - চাকুরি বিঞ্জপ্তি

Gaibandha.news Ad. image

খোঁজখবর - টেন্ডার বিঞ্জপ্তি

Gaibandha.news Ad. image

খোঁজখবর - বেচাকেনা

জরীপ/ভোটাভুটি (হাঁ/না)

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Activities

© 2019 Gaibandha.News. All rights reserved. Inspired by w3schools.com

Crafted with by arccSoftTech & Powered with CSR by arccY2K.com a Subsidiary of BangladeshICT.com